হাজার প্রদ্বীপ প্রজ্বলনে দীপাবলী


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১০, ২০১৫, ৮:১৯ AM
হাজার প্রদ্বীপ প্রজ্বলনে দীপাবলী

dipaboliফুলবাড়ীয়া নিউজ 24 ডটকটম : দীপাবলীতে প্রদ্বীপ জ্বালানোর রীতি প্রাচীনকালের। দিপালী উৎসবের লক্ষ্যে মহাশ্মশান রক্ষা সমিতি দুদিনব্যাপী ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। উপমহাদেশের বৃহৎ ও ঐতিহ্যের এই দিপাবলী উৎসব মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বরিশাল নগরীর কাউনিয়া মহাশশ্মানে হাজারও প্রদ্বীপ প্রজ্বলনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে। শতবছরের এ উৎসবকে ঘিরে মহাশ্মশান নানা রংয়ের আলোয় আলোকিত হয়ে উঠেছে। প্রতি বছর ভুত চতুর্দশী পুণ্য তিথিতে হিন্দুধর্মালম্বীদের এ উৎসব হয়ে থাকে। একই সঙ্গে পালিত হয় কালিপূজা।

প্রিয়জনের স্মৃতিচারণ করে তাদের সমাধি সৌধে প্রদীপ জ্বালিয়ে এই প্রার্থনা প্রথা উনবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিক থেকে দিপালী উৎসব নামে উদযাপিতে হয়ে আসছে। সে কারণেই কাউনিয়া মহাশ্মশানে উপমহাদেশের বিভিন্ন দেশ থেকে হিন্দুধর্মাবলম্বিরা আসেন সজনদের স্মরণ করতে। সমাধির ওপর হাজার হাজার মোমবাতি জ্বালিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন তাদের পূর্বপুরুষদের স্মরণ করবে। তাদের স্বর্গীয় আত্মার শান্তি কামনায় প্রার্থনা করবে।

সমাধি সৌধে শুধুমাত্র দীপ জ্বালানোই হয় না, মৃত ব্যক্তির ছবি ফুল চন্দন দিয়ে সাজিয়ে রাখা হয় সমাধির উপর। প্রিয়জনের উদ্দেশ্যে খাবার-দাবারও দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে ধুপ, ধুপকাঠি জ্বেলে দেওয়া হয়। কেউ কেউ আবার ধর্মীয় গান ও খোল বাদ্য সহকারে কীর্তন করেন প্রিয়জনের আত্মার সন্তুষ্টির জন্য।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর শ্মশান দিপালী উৎসবে, সমাধি সৌধে দীপ জ্বেলে দেবার পর আলোর রশ্মিতে ভরে ওঠে মহাশ্মশান। এই উৎসব দেখতে দেশ-বিদেশ থেকে বহু পর্যটকও এসময় বরিশালে আসেন। তাদের কেউ কেউ আত্মীয়-স্বজন ও পরিচিত বন্ধুবান্ধবদের স্মৃতির উদ্দেশে দীপ জ্বেলে দেয়।
সূত্র- আমাদের সময়.কম

https://www.bkash.com/