সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন

সব তারকা দম্পতির ক্ষেত্রেই ভাঙনের গুজব রটে, এ নিয়ে কথা কম বলাই ভালো

মিডিয়ায় বর্তমানে সবচেয়ে আলোচিত চরিত্র চিত্রনায়িকা মৌসুমী। সম্প্রতি চিত্রনায়ক ওমর সানীর সঙ্গে তার সুখের সংসারে ভাঙনের অভিযোগ উঠেছে আরেক চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। বিষয়গুলো নিয়ে কথা হয় মৌসুমীর সঙ্গে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন- ফয়সাল আহমেদ

অভিনেতা-প্রযোজক ডিপজলের ছেলের বিয়েতে ওমর সানী চড় মেরেছেন জায়েদ খানকে। অভিযোগ আছে, জায়েদ খানও পিস্তল দিয়ে গুলি করার হুমকি দিয়েছেন। এ বিষয়ে আপনি কতটুকু জানেন?

আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম না। তাই আমি কিছুই জানি না। আমি জেনেছি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও গণমাধ্যমে এ নিয়ে লেখালেখি দেখে।

আমরা জেনেছি আপনার স্বামী চিত্রনায়ক ওমর সানী সেদিন বাসায়ই এসেছিলেন অনুষ্ঠান থেকে। তিনি আপনাকে কিছুই বলেননি?

না। তার সঙ্গে আমার এ বিষয় নিয়ে কোনো প্রকার কথা হয়নি।

কিন্তু ঝামেলাটা তো হয়েছে আপনাদের সংসার ভাঙা নিয়ে!

দেখুন, আমার প্রসঙ্গটা অহেতুক টানা হয়েছে। জায়েদের সঙ্গে একজন শিল্পীর যে সম্পর্ক, তা-ই আছে। আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি, ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। সে অনেক ভালো ছেলে। সে কখনই আমাকে অসম্মান করেনি।

এ বিষয়ে কিন্তু ওমর সানী বারবারই বলছেন জায়েদ আপনাকে অসম্মান করেছেন, সংসার ভাঙতে চাচ্ছেন-

কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে?

কারণ সেসব গণমাধ্যমেই বলেছেন-

এই জিনিসটা আমি বুঝতে পারছি না। এটা যদিও একান্তই আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল।

আপনি বলতে চাচ্ছেন এমন কিছু না। জায়েদ খান নির্দোষ?

এখানে জায়েদের দোষ আমি পাইনি।

তা হলে এমন কেন বলা হচ্ছে?

সেটা আমিও জানি না। আমার মনে হচ্ছে আমাকে ছোট করার মধ্যেই অন্যের আনন্দ! যাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করে আসছি সেই ওমর সানী ভাই কেন এত আনন্দ পাচ্ছেন- সেটা আমি বুঝতে পারছি না! আমার কোনো সমস্যা থাকলে অবশ্যই আমার সঙ্গে সমাধান করবে, সেটিই আমি আশা করি।

যেহেতু এটি গণমাধ্যমে এসেছে তাই এটা কি এখন পারিবারিক বিষয় আছে?

দেখুন, আপনারা সাংবাদিক ভাইয়েরা একটা নিউজ পেলে, যাচাই-বাছাই ছাড়াই দ্রুত প্রকাশের চেষ্টা করেন। এটা আসলে ঠিক না। আমার প্রসঙ্গটি তো আমিই পরিষ্কার করব, নাকি? সানী আসলে একতরফা বলেছেন। কিন্তু আমি বলেছি কিনা, আমি অভিযোগ করেছি কিনা; জানাটা খুব বেশি জরুরি ছিল।

আপনার বক্তব্য কিন্তু কেউই প্রকাশ করেনি। সবাই ঘটনা তুলে ধরেছে। আপনাকে শুরুতেই তা হলে এটা নিয়ে বক্তব্য দেওয়া উচিত ছিল।

আগে তো আমাকে বিষয়টা জানতে হবে। আমি জেনেছিই দুদিন পর। তা হলে আমি কীভাবে ক্লিয়ার করব? আর অনেকেই অভিযোগ তুলেছেন আমাকে ফোনে পাওয়া যায় না। সত্যি বলতে ফোনে আমাকে কখনই খুব একটা পাওয়া যায় না।

এখন তো গুঞ্জন উঠেছে আপনাদের সংসার ভাঙা নিয়ে।

এটা কি নতুন ঘটনা? প্রায় সব তারকা দম্পতির ক্ষেত্রেই ভাঙনের গুজব রটে, এ নিয়ে কথা কম বলাই ভালো। আমি শুধু বলতে চাই, যে বিষয় নিয়ে এখন মিডিয়ায় চর্চা হচ্ছে- সেটা একতরফা অভিযোগ। -সংগৃহিত

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইট © ফুলবাড়িয়ানিউজ২৪ ডট কম ২০২০
Design & Developed BY A K Mahfuzur Rahman