ভালুকায় বিদ্যালয়ের ঘর নির্মানে বাধা ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীর ভবিষৎ অনিশ্চিত


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৬, ৩:৫৭ AM
ভালুকায় বিদ্যালয়ের ঘর নির্মানে বাধা ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীর ভবিষৎ অনিশ্চিত

index-6মোঃ জাহিদুল ইসলাম খান, ভালুকা : ভালুকা উপজেলার বরাইদ লোহাবই এ এইচ সরকার বালিকা বিদ্যালয়ের একটি ঘর নির্মানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে । ফলে ওই বিদ্যালয়ের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীর ভবিষৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
জানাযায়, উপজেলার বরাইদ গ্রামে স্থাপিত লোহাবই এ এইচ সরকার বালিকা বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই লেখাপড়ায় সুনাম অর্জন করে।এস এস সি পরীক্ষায় শতভাগ পাস করে আসছে। গ্রামের কতিপয় ব্যাক্তি ওই বিদ্যালয়ের জমি নিজেদের মালিকানা দাবী করে বিদ্যালয়টি ধ্বংসের পায়তারা করে আসছে। সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে বিদ্যালয়ে নতুন ঘর নির্মান করতে গেলে ওই গ্রামের সাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে ঘর নির্মানে বাধা দেয়।
স্থানীয় ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায় বরাদী মৌজার এস এ রেকর্ডীয় মালিক ইব্রাহীম সরকারের ছেলে নূরুল ইসলাম ১/১/১৯৯১ সালে ১৪ নং দলিল মূলে ১৮৪৪ দাগে ১২ শতক জমি রেকর্ডীয় মূলে রয়মনন্নেছার ছেলে আশরাফ আলী ১৬/০৩/১৯৭৮ সালে ৪৪৮১ দলিল মূলে ১৮৪৪ দাগে ৮০ শতক জমি আবুল কালামকে রেজিস্ট্রী করে দেন। পরে আবুল কালাম ২৩/০৭/১৯৯০ সালে এ এইচ সরকার বালিকা বিদ্যালয়ের নামে রেজিষ্ট্রী করে দেন। সম্প্রতি ওই জমির মালিকানা দাবী করে ওই সাহাব উদ্দিন মেদুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ দায়ের করেন। পরিষদ উভয় পক্ষের কাগজ পত্র পর্যালোাচনা করে বিদ্যালয়ের পক্ষে রায় দেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতিকুল ইসলাম জানান, ঘর নির্মান করতে না পারায় ছাত্রীদেরকে গাদাগাদি করে ক্লাশ করাতে হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আহসান তালুকদার জানান, বিদ্যালয়ের ঘর নির্মানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ পেয়েছি। আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করবো।

https://www.bkash.com/