বিদায় ও বরণে অনন্য পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ৬, ২০২৩, ৯:৩৫ PM
বিদায় ও বরণে অনন্য পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়

ফুলবাড়িয়া  : বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক কখন যোগদান করে, কখন যায়, হোক সেটা বিদায় অথবা পদোন্নতির ন্যায় অন্য প্রতিষ্ঠানে স্থানান্তর সে খবর শুনা যায় না। সে উপলক্ষে হয় না কোন বিদায় বা বরণ অনুষ্ঠান। কে কার খবর রাখে? এমন একটা অবস্থা, সবাই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত। এসব হতাশা ও নিরাশাকে পাশ কাটিয়ে ফুলবাড়িয়া উপজেলার পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় ভিন্ন রেওয়াজ সৃষ্টি করে চলেছে। সম্প্রতি ঐ স্কুলের সহকারি প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মোজাফ্ফর হোসেন একই উপজেলার ধামর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ লাভ করেন। একই প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র সহকারি শিক্ষক (বিজ্ঞান) অধীর চন্দ্র পাল ফুলবাড়ীয়া উপজেলা বিজ্ঞান শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হতে সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে। উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এটি।
বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) বিকালে পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান। এর আগে অনুষ্ঠিত হয় বিশ^ শিক্ষক দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভা। বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. সুরুজ্জামান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পলাশতলী আমিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি, ফুলবাড়িয়া উপজেলা শাখার সভাপতি এ.কে.এম. সায়ফুল ইসলাম (কাজল)। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আতিকুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় বিদায়ী শিক্ষক মোহাম্মদ মোজাফ্ফর হোসেন ও বরণ্যে শিক্ষক অধীর চন্দ্র পাল ছাড়াও শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন। এরপর অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা শ্রেণি ভিত্তিক বিদায়ী উপহার তুলে দেন এবং বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকেও বিদায়ী শিক্ষককে বিদায়ী উপহার ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়। বিজ্ঞান শিক্ষক সমিতির সভাপতিকে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট ও ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

 


প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ.কে.এম. সায়ফুল ইসলাম (কাজল) বলেন, অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একটি অতীত সুনাম রয়েছে। আমরা লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষা সংশ্লিষ্ট যতগুলো প্রোগ্রাম রয়েছে তাতে আমাদের অংশ গ্রহণ ও সফলতা রয়েছে। ফলশ্রুতিতে এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমি নিজে উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি হিসাবে নেতৃত্ব দিচ্ছি, বাবু অধীর চন্দ্র পাল তিনি উপজেলা বিজ্ঞান শিক্ষক সমিতির নেতৃত্ব দিচ্ছেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা উপজেলার বিভিন্ন খেলাধুলায় সাফল্য অর্জন করে জেলা ও জাতীয় পর্যায়ে অংশ গ্রহণ করে। অনেক সফলতা আমাদের আছে, বলতে গেলে অনেক সময় লাগবে। এসব সফলতা আমার একার নয়, অত্র এলাকাবাসী, শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সহযোগিতা করে বলেই বিদ্যালয়টি এগিয়ে যাচ্ছে। সামনের দিনগুলোতে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

https://www.bkash.com/