বন্ধুর বাড়িতে গুলিবিদ্ধ হয়ে কিশোর নিহত


প্রকাশের সময় : জুন ২৩, ২০১৬, ৫:০০ AM / ৯৩
বন্ধুর বাড়িতে গুলিবিদ্ধ হয়ে কিশোর নিহত

photo-1466612883ফুলবাড়িয়া নিউজ 24ডটকম : ময়মনসিংহ শহরে বন্ধুর বাড়িতে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক কিশোর নিহত হয়েছে। বুধবার (২২জুন) বিকেলে শহরের আকুয়া চৌরঙ্গী মোড়ে এক চিকিৎসকের পাঁচতলা বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত কিশোরের নাম তৌহিদুল ইসলাম তরু (১৭)। সে আকুয়া দক্ষিণপাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

ঘটনার পরপর পুলিশ ওই বাসার একটি কক্ষ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও খালি ম্যাগাজিন উদ্ধার করেছে। পুলিশ বাসাতেই চিকিৎসকের স্ত্রী দিলরুবা বেগম রুবিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।
ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে কর্মরত হাড়জোড়া রোগের চিকিৎসক ডা. মো. নাসির উদ্দিনের বাসার নিচতলার একটি কক্ষে এই ঘটনা ঘটেছে। নাসিরের স্ত্রী দিলরুবা পুলিশকে জানান, তাঁরা নিচতলার ফ্ল্যাটে থাকেন। সন্ধ্যার আগে তার বড় ছেলে কেফায়েত উল্লাহ বিন নাসির, ছেলের বন্ধু তৌহিদসহ কয়েকজন নিচতলার একই কক্ষে ছিল। পাশের কক্ষ থেকে হঠাৎ তিনি গুলির শব্দ শুনতে পান । পরে তার ছেলে ও এলাকার লোকজন তৌহিদকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যায় তৌহিদ।

কেফায়েত উল্লাহ ও তার বন্ধু তৌহিদ দুজনই এবার ময়মনসিংহ শহরের নওমহল পীর বাড়ি মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাস করেছে।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক প্রদীপ কুমার সরকার বলেন, ‘সন্ধ্যার কিছুক্ষণ আগে তৌহিদকে মৃত অবস্থায় জরুরি বিভাগে আনা হয়। তার বুকে বোতামের মতো একটি হোল (গর্ত) দেখতে পেয়েছি।’

এলাকাবাসীর দাবি, ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড। এটি ধামাচাপা দিতেই হাসপাতালে নেওয়ার পর নাসিরের স্ত্রী দিলরুবা লোকজনের কাছে প্রচার করেন, তৌহিদ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েছে।

এদিকে গুলিতে মৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মইনুল হক, মডেল থানার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুর রশিদ, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। বিপুল সংখ্যক পুলিশ এলাকাটিকে ঘিরে রেখেছে।

ওসি কামরুল ইসলাম জানান, গুলিবিদ্ধ হয়ে কিশোর তৌহিদ মারা গেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

যোগাযোগ করা হলে নিহত তৌহিদের বড় ভাই মুক্তা এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমরা লাশ নিয়ে ব্যস্ত আছি। স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে আইনি ব্যবস্থা নেব।’
-সংগৃহিত