বঙ্গবন্ধু চত্বরের রেন্টি গাছের ডালপালা ছাটাই


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ১, ২০২৩, ৮:১৭ PM
বঙ্গবন্ধু চত্বরের রেন্টি গাছের ডালপালা ছাটাই

ফুলবাড়িয়া : ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলা সদরের মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সৌধ চত্বরে রেন্টি গাছের ডালপালা ছাটাই করায় পরিবেশ বিনষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) ছাটাই করা উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তার বিচার দাবী করেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা।
জানা যায়, মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিসৌধ চত্বরের দক্ষিণের সীমানা ঘেঁষে উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয়। ঐ অফিসের ভেতরের একটি বড় রেন্টি গাছের ডালপালায় চারদিকে ছড়িয়ে ছিল। কিছু ডালপালা স্মৃতিসৌধ চত্বরে ছায়া দিতো। কিন্তু হঠাৎ গাছের মোটা মোটা ডালপালা ছাটাই করার উদ্যোগ নেয় উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম। অফিসের স্টাফ সুলতান কে দিয়ে শ্রমিকের মাধ্যমে ডালপালা ছাটাই করা হয়। ছাটাই করা ডালপালা দ্রুত সরানো হয় দিনদুপুরে।
বঙ্গবন্ধু চত্বরের আশে পাশের ব্যবসায়ীরা জানান, এই গাছটি কেন মারার উদ্যোগ নেওয়া হল তা আমাদের বোধগম্য নয়। যেভাবে কর্তন করা হয়েছে তাতে এই বাঁচার কোন সম্ভবনা নেই। কয়েকদিন আগে বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন ঝুঁকিপূণ্য ডালপালা কর্তন করেছে কিন্তু ঐ গাছে হাত দেয় নাই। ডালপালাগুলো থাকলেই পরিবেশ ভালো থাকতো। কেননা ডালপালায় পাখিরা বসতো, ছায়া ও বাতাস দিতো। আর ডালপালাগুলো কিন্তু রাস্তার দিকে যায় নাই। যার কারণে ডালপালার কোন ক্ষতিকর দিক ছিল না। তারা বলছেন, গাছটির কী অপরাধ ছিল!
উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম বলেন, অফিসের ছাদে পাতা পড়ে ছাদ নষ্ট হয় এবং বঙ্গবন্ধু চত্বরে পাতা পড়ে পরিবেশ নোংরা হয় এমন চিন্তাতেই ডাল ছাটাই করা হয়েছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এড. ইমদাদুল হক সেলিম বলেন, যে বা যারাই কাজটি করেছে তা নিকৃষ্টতম কাজটি করেছে। কারণ বঙ্গবন্ধু চত্বরকে ঘিরে প্রতিদিন অনেক সময় একাধিক সভা সমাবেশ হয়, সেখানে অনেক সময় রোদের তাপে দাড়ানো কষ্ট হয়ে যায় সে সময় গাছ আমাদেরকে ছায়া ও অক্সিজেন সহ নানাভাবে সহযোগিতা করে। যাদের নির্দেশে ডালপালা ছাটাইয়ের নামে গাছটি মারার পরিকল্পনা করেছে তারা কখনোই বঙ্গবন্ধু তথা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি নয়। উর্ধ্বতন কতৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে প্রত্যাশা করছি।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মালেক সরকার বলেন, অফিসার আমাকে বলছিল, পাতা পড়ে তাদের ঘর নষ্ট হয়, আমি বলেছিলাম কিছুটা ছাটাই করার জন্য। বঙ্গবন্ধু চত্বরের সামনে ডালপালা ছাটাইয়ের বিষয়টি আমি জানি না, আগামীকাল সরজমিনে খোঁজ নিবো।

https://www.bkash.com/