সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

প্রেমের বলি : বন্ধুর ছুরিকাঘাতে বন্ধু খুন

ফুলবাড়িয়া নিউজ 24 ডট কম : সরকারি তিতুমীর কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র মামুন। আজই (রবিবার) ফরম ফিলাপ করার কথা ছিল তার। কিন্তু মোবাইলের একটি ম্যাসেঞ্জ ই কাল হয়েছে মামুনের।

বন্ধু শাকিলের মুঠো ফোন থেকে বার্তা এসেছিল আগামীকাল তুই কলেজে চলে যাবি। তোর সাথে দেখা করা দরকার। সন্ধ্যার পর আমি (শাকিল) হোরবাড়ি স্কুলের সামনে থাকবো। কথা মতো মামুন শাকিলের সাথে দেখা করে এবং দুই বন্ধুর সাথে কথোপথনের এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। শুরু হয় ধস্তাধস্তি। মামুনের স্কুল ব্যাগে থাকা চাকু হঠাৎ পড়ে যায়। নিজে বাঁচতে সেই ছুরি দিয়ে মামুনকে একাধিক আঘাত করে শাকিল। মামুন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে স্থানীয়রা মামুনের ডাক-চিৎকারের টের পেয়ে শাকিলকে আটক করে।
ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার কালাদহ ইউনিয়নে শনিবার (২৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে হুরবাড়ি গ্রামে। ঘটনায় মামুন (২১) নামের একজন খুন হয়। ঘাতক বন্ধু শাকিল (২২) কে গ্রেফতার করে পুলিশ।
নিহত মামুন উপজেলার আছিম পাটুলী ইউনিয়নের রামনগর জোরপুকুর পাড় গ্রামের মৃত আব্দুল হাই এর ছেলে। অপরদিকে গ্রেপ্তারকৃত শাকিল একই উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের মৈশেরচালা গ্রামের আব্দুল মালেক এর ছেলে।
ফুলবাড়িয়ার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হানিফ মিয়া জানান, একই উপজেলার কালাদহ ইউনিয়নের সহোদর দুই বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল নিহত মামুন ও গ্রেপ্তারকৃত শাকিল মিয়ার। নিহত মামুন এর প্রেমের সম্পর্ক ছিল বড় বোনের সাথে ও গ্রেপ্তারকৃত শাকিল মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল ছোট বোনের সাথে। এসব নিয়ে মামুন ও শাকিলের মধ্যে বিরোধ ছিল।
তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মামুনের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। গ্রেফতারকৃত শাকিলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এমন ঘটনায় হতাশ স্থানীয়রা। কিভাবে সম্ভব? একজন বন্ধু আরেকজন বন্ধু কে পাকা রাস্তার ধারে এনে, নিঞ্জন জঙ্গলও নয় সেখানে এনে খুন করতে পারে? অথচ দুজনের বাড়িও অনেক দূরে! তারাও উদ্বিগ্ন তাদের সন্তানদের নিয়ে।

খুন হওয়ার মামুনের পরিবার বাকরুদ্ধ। বাবা মারা গেছেন প্রায় দু বছর হলো। মামুনকে নিয়ে অনেক আশা ভরসা ছিল মামাসহ পরিবারের অন্যান্য স্বজনদের। কিন্তু সেই আশায় ছাই পড়ল। এই শোক মা কেমনে সইবেন সেই চিন্তায় স্বজনরা। তারপরও সঠিক বিচারের দাবী স্বজনদের। সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করেছেন তারা।

ফুলবাড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, রবিবার (৩০ অক্টোবর) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মামুনের মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইট © ফুলবাড়িয়ানিউজ২৪ ডট কম ২০২০
Design & Developed BY A K Mahfuzur Rahman