নাওগাওয়ের কৃষ্ণপুরে আওয়ামী লীগের কার্যকরী সভা


প্রকাশের সময় : মে ২১, ২০২৩, ১২:২৪ PM
নাওগাওয়ের কৃষ্ণপুরে আওয়ামী লীগের কার্যকরী সভা
প্রেস বিজ্ঞপ্তি : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ফুলবাড়িয়া উপজেলা শাখার নাওগাও ইউনিয়নে ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  শনিবার বিকালে কৃষ্ণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির এই সভা হয়।
৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেম্বার মোঃ আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হোসেন আলীর সঞ্চালনায় সভায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য এডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এম এ কুদ্দুস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট ইমদাদুল হক সেলিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও পৌর মেয়র গোলাম কিবরিয়া, সহ সভাপতি ময়েজ উদ্দিন তরফদার, ডাঃ তোফাজ্জল হোসেন, অধ্যাপক আবুল হোসেন,  সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান খান, দফতর সম্পাদক সাংবাদিক মোঃ আব্দুল আজিজ, সহ দফতর সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন খান, সদস্য এডভোকেট আব্দুল মুত্তালিব সরকার, নাওগাও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুস সালাম, দেওখোলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক মোহাম্মদ আবদুল হান্নান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামী নির্বাচন হবে একটি কঠিন নির্বাচন। নির্বাচনের এই বৈতরণি পার হতে হলে এখন থেকেই কাজ করতে হবে।  নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায়  আনতে হবে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশ ভাল থাকে, দল ভাল থাকে, মানুষ ভাল থাকে। আওয়ামী লীগ একটা আদর্শিক দল। সেই আদর্শকে তৃণমূলে ছড়িয়ে দিয়ে দলকে আরো শক্তিশালী, দায়িত্বশীল এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে মজবুত করতে গঠনতন্ত্র মোতাবেক কেন্দ্রীয় এবং জেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশনা অনুসারে ফুলবাড়িয়ার বিভিন্ন ইউনিয়নের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা হচ্ছে। এই সভার মাধ্যমে ফুলবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগকে একটি উপজেলা আওয়ামী লীগ করতে কাজ করছি। অনেকেই বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করছে। উপজেলা আওয়ামী লীগকে দুর্বল করার চেষ্টা করছেন। যতই চেষ্টা করুক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাথে তৃণমূলের নেতাকর্মী আছে। এই তৃণমূলকে সাথে নিয়ে আমরা ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ গড়তে চেষ্টা করছি। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না থাকলে আমাদের অস্তিত্ব থাকবে না। আপনারা কমিটিতে এসেছেন বলেই শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগের কাছে আপনারা দায়বদ্ধ। ২০২৪ সালের নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃণমূলকে সুসংগঠিত করার মধ্যদিয়ে আওয়ামীলীগকে আরো গতিশীল করতে নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই আলোকে ফুলবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সভা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় নাওগাও ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা হয়। নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামীতে উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ডে ৩ মাস অন্তর অন্তর কার্যকরী সভা করতে হবে। দলীয় নেতাকর্মীদের কাজ হলো, দলকে সুসংগঠিত করা এবং নির্বাচন এলে দলকে বিজয়ী করা। গত সাড়ে ১৪ বছরে সারা দেশের ন্যায় ফুলবাড়িয়ায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। ভিজিএফ, ভিজিডি, বিভিন্ন ভাতা, প্রাইমারী স্কুল শিক্ষার্থীরা স্কুল ড্রেসসহ বছরের প্রথমদিনে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত বিনামুল্যে বই পাচ্ছে। সহজলভ্য মুল্যে কৃষকরা সার পাচ্ছে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, নাওগাওয়ের উন্নয়ন আওয়ামী লীগের আমলেই হয়েছে। শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা নেতাকর্মীদের বেশি বেশি প্রচার করতে হবে।
২০০৮ সাল থেকে শুরু করে শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ন ও জনগনকে দেয়া সুবিধা এবং আগামীতে জননেত্রী শেখ হাসিনা কি করবেন তা জনগনের মাঝে প্রচার করতে হবে। নির্বাচন যে কোন সময় হতে পারে। তাই ঘরে বসে থাকার সময় নেই। বিএনপি জামাতের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে কঠোর ভুমিকা নিতে হবে। দলের ঐক্য বজায় রেখে শৃংখলার সাথে দল পরিচালনায় সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, রাজনৈতিক প্রতিযোগীতায় হেরে গিয়ে দলের বিরুদ্ধাচারণ করছেন। দলের মধ্যে বিভাজনের চেষ্টা করছেন। অনেকেই অরাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়েছেন। অরাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করলে তিনি যত বড় নেতাই হোক জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকে ক্ষমা করবেন না। ফুলবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ আজ ঐক্যবদ্ধ। উপজেলা আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে কেউ বিভাজনের লক্ষে কোন সভা করতে চাইলে তাদেরকে বলবেন উপজেলা, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড কমিটির নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে আসুন আমরা আপনাদের সাথে আছি। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ২০২৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকেই এমপি হিসেবে দেখতে চাইবেন আমরা তার সাথেই আছি।
https://www.bkash.com/