গৌরীপুরে গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১১, ২০১৮, ১:২৭ PM
গৌরীপুরে গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা

মশিউর রহমান কাউসার, গৌরীপুর : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বিএনপি নেতাকর্মীদের আন্দোলন ঠেকাতে বিশেষ অভিযান অব্যাহত রেখেছে পুলিশ। বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে দলীয় নেতাকর্মীদের নাশকতার অভিযোগে পুুলিশ ইতোমধ্যে বিষ্ফোরক আইনে দুইটি পৃথক মামলায় ৪০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত প্রায় ৫০ জনকে আসামী করেছে। তাদের মধ্যে স্থানীয় প্রথম সাড়িঁর নেতাকর্মীদের নাম উল্লেখ্য রয়েছে। এতে আতঙ্কে রয়েছেন বিএনপি-যুবদল ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। গ্রেফতার এড়াতে তারা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ওই মামলা দুইটিতে উল্লেখ্য যোগ্য আসামীরা হলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ময়মনসিংহ জেলা উত্তর বিএনপির যুগ্নআহবায়ক গৌরীপুর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আহম্মেদ তায়েবুর রহমান হিরণ, জেলা উত্তর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শামছুল হক ভিপি শামছু, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান, পৌর বিএনপির সিনিয়র যুগ্নআহবায়ক আলী আকবর আনিছ, উপজেলা বিএনপির যুগ্নআহবায়ক মইলাকান্দা ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ, পৌর যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক সৈয়দ তৌফিকুল ইসলাম, জেলা উত্তর তাতীঁদলের আহবায়ক শাহজাহান কবির হিরা, গৌরীপুর উপজেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি নুরুজ্জামান সুহেল, পৌরছাত্র দলের সভাপতি তাজিজুল ইসলাম রাঙ্গা, কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি আ: কাদির, উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এমএ বাশার ঝুলন। এদিকে বিএনপির স্থানীয় নেতাকর্মীদের কোন্দলের কারণে দলের কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচিগুলো তারা ঠিক মতো পালন করতে পারছেন না। তারা পৃথক পৃথক গ্রুপে বারবার মিছিল সমাবেশের চেষ্ঠা করেও পুলিশি বাধায় দাঁড়াতে পারেনি তারা। মাঝে মধ্যে তারা পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঝটিকা মিছিল করেন। পুলিশ দাওয়া দিলে উত্তেজিত হয়ে পড়েন বিএনপি কর্মীরা। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ দুই মামলা আসামি ধরতে এবং নাশকতা এড়াতে গৌরীপুরে বিএনপি নেতাদের বাসায়, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এবং সম্ভাব্য সব জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। গ্রেফতার এড়াতে অনেকেই আত্মগোপনে চলে গেছেন। গত ৮ ফেব্রুয়ারী বৃহষ্পতিবার থেকে গতকাল রোববার (১১ ফেব্রুয়ারী) পর্যন্ত উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের ৯ জন নেতাকে পুলিশ আটক করেছে বলে জানা গেছে। তারা হলেন উপজেলা শ্রমিকদলের সভাপতি ও ২নং গৌরীপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার শহীদুল্লাহ শহীদ, উপজেলা বিএনপি যুগ্ন আহবায়ক ও অচিন্তপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোফাক্করুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, অচিন্তপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন বকুল, গৌরীপুর সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মাইনুল ইসলাম শাহীন, সাবেক ছাত্রদল নেতা সাহেদ মুন্সী, জুলফিকার মুন্সী, বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম, মোফাজ্জল হোসেন। গৌরীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ময়মনসিংহ জেলা উত্তর বিএনপির যুগ্নআহবায়ক গৌরীপুর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আহম্মেদ তায়েবুর রহমান হিরণ অভিযোগ করেন, সরকার সব ধরনের নাগরিক অধিকার কেড়ে নিচ্ছে, বিএনপি কর্মীর বিরুদ্ধে কোনো কারণ ছাড়াই মামলা করেছে পুলিশ। আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে বাধাঁ দিচ্ছে পুলিশ। দলীয় নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় হানা দিচ্ছে। ফলে নেতাকর্মীদের পাশাপাশি তাদের পরিবার পরিজনও আতঙ্কে আছেন। গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দোলোয়ার আহম্মদ জানান, আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং নাশকতা এড়াতে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের।

https://www.bkash.com/