আসাম থেকে সম্মাননা পেলেন জাকিয়া সুলতানা শিল্পী


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৬, ২০২৩, ৭:০৪ PM
আসাম থেকে সম্মাননা পেলেন জাকিয়া সুলতানা শিল্পী

আসামের করিমগঞ্জে সম্প্রতি ‘বিশ্ব মানবধর্ম বিকাশ পরিষদ’র উদ্যোগে দুই বাংলার সমন্বয়ে আয়োজন করা হয় আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসব ও গুণীজন সম্মাননা ২০২৩। সাহিত্যে অনবদ্য অবদানের জন্য বাংলাদেশের ফরিদপুর জেলার জাকিয়া সুলতানা শিল্পীকে মায়ারাণী দেবী আন্তর্জাতিক গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড, ড. ভূপেন হাজরিকা স্মৃতি স্মারক ও দুটি সনদপত্র প্রদান করেন আয়োজক কমিটি। আসামের জনপ্রিয় ও ঐতিহ্যবাহী ঝাঁপি, সরাই ও উত্তরীয় দিয়ে জাকিয়া সুলতানা শিল্পীকে সম্মানিত করা হয় এবং বরণ করে নেওয়া হয়।

আসামে আমন্ত্রণ পেয়ে অর্জন করেন একইসঙ্গে আরও পাঁচটি সম্মাননা। অনুষ্ঠানে জাকিয়া সুলতানা শিল্পী সম্মাননতাপ্রাপ্তিতে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করা ছাড়াও কবিতাপাঠ করেন। সাহিত্য সাধনায় সবাইকে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তিনি। জাকিয়া সুলতানা শিল্পী শিক্ষকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত। পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে লেখালেখি করে আসছেন।

আন্তর্জাতিক এই সাহিত্য উৎসবে উভয় দেশের প্রায় তিনশ কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী ও গুণীজন অংশগ্রহণ করেন। অতিথিদের আগমনে মুখরিত ছিল করিমগঞ্জ প্রাঙ্গণ। আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসব ও গুণীজন সম্মাননা ২০২৩ আরও পেয়েছেন World Wide Writers Association-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুহাম্মদ শামসুল হক বাবু ও কবি রচনা পারভীন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ‘বিশ্ব মানবধর্ম বিকাশ পরিষদ’র সভাপতি, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নীহার রঞ্জন দেবনাথ। কবিতাপাঠ, বক্তব্য, ২০ লেখক ও গুণীজনকে সম্মাননা প্রদান এবং সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় অনুষ্ঠানটি।

https://www.bkash.com/