আসলেই আমার ফল্ট ছিল: ডলি সায়ন্তনী


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৫, ২০২৩, ৫:২৩ PM
আসলেই আমার ফল্ট ছিল: ডলি সায়ন্তনী

মনোনয়নপত্র ফিরে পেতে ক্রেডিট কার্ডের বকেয়া পরিশোধ করে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন পাবনা-২ (সুজানগর-বেড়ার একাংশ) আসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের (বিএনএম) প্রার্থী কণ্ঠশিল্পী ডলি সায়ন্তনী।

আজ মঙ্গলবার ইসিতে আপিল দায়ের, শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য অস্থায়ীভাবে দুই নম্বর বুথে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের উপপরিচালক মোহাম্মদ নুরুল হাসান ভূঞার কাছে তিনি আবেদন জমা দেন।

আবেদন জমা শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘যে অভিযোগটা আসছে এটা আসলেই আমার ফল্ট ছিল। কারও ষড়যন্ত্র দেখছি না। এটা আমি খেয়াল করিনি। তবে আশা করছি মনোনয়নপত্রের বৈধতা ফিরে পাব।’

ডলি সায়ন্তনী আরও বলেন, ‘আমার ক্রেডিট কার্ডের ছোট একটা ঝামেলা ছিল, যেটা আমার নলেজে ছিল না। সন্তান বাইরে পড়াশুনা করে সেই জন্য দেশের বাইরে যাওয়া আসা করা লাগে। ক্রেডিট কার্ডের অ্যামাউন্ট পরিশোধ করতে ইসিতে এসেছি।’

কত টাকা বকেয়া ছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘খুব কম টাকা, বলার মতো না।’

ভোটের মাঠে লড়াই করা প্রসঙ্গে জনপ্রিয় এই কণ্ঠশিল্পী বলেন, ‘আমার দীর্ঘ দিনের ইচ্ছা এলাকার মানুষের জন্য কিছু করা। সেই জন্য এলাকাবাসীসহ সবার সহযোগিতা চাই।’

এরআগে ক্রেডিট কার্ড সংক্রান্ত খেলাপি ঋণের কারণে পাবনা জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মু. আসাদুজ্জামান তার মনোনয়ন বাতিল করেন। মনোনয়নপত্র ফিরে পাওয়ার জন্য ক্রেডিট কার্ডের বকেয়া পরিশোধ করে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন এই কণ্ঠশিল্পী।

https://www.bkash.com/