ব্রেকিং নিউজঃ-
Home » অনুসুন্ধানি প্রতিবেদন » ফলোআপ : সরকারী গোডাউন চাউল সিন্ডিকেটের দখলে

ফলোআপ : সরকারী গোডাউন চাউল সিন্ডিকেটের দখলে

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0

14000

এনায়েতুর রহমান, আ: জব্বার, হাফিজুল ইসলাম স্বপন, আ: জব্বার, শহিদুল ইসলাম, ফুলবাড়িয়া নিউজ ২৪ডটকম : উপজেলার সরকারী গোডাউন থেকে ডিও/রশিদ ছাড়াই চাউল উত্তলনের কথা স্বীকার করেছেন ফুলবাড়ীয়া বাজারের শাহজালাল রোডস্থ চাউল ব্যবসায়ী বারেক ট্রেডার্সের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল বারেক। দূর্গাপূজার উপলক্ষে বরাদ্দকৃত চাউল নিয়ে নিউজ করতে সংবাদকর্মীরা তার মুখামুখি হলে তিনি এসব তথ্য দেন। আজ সোমবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে ফলোআপ নিউজ করতে তার ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠানে গেলে তিনি সাংবাদিকদের সাথে খোলামেলা আলোচনায় তার ব্যবসার অবস্থান স্পষ্ট করেন।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি ভিন্ন ভিন্ন কথা বলে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে বলেন, আমি ডিও কিনিনি, মাল (চাউল) কিনেছি। চাউল গোডাউন থেকে ডিও/রশিদ ছাড়াই তুলেছি। রশিদ তারাও (গোডাউন কতৃপক্ষ) দেয় নাই, আমিও আনি নাই। ওসিএলএসডি এর সাথে ্আমার কোন সখ্যতা নেই তবে তিনি আমাকে একজন ভাল ব্যবসায়ী হিসেবে জানেন।
আ: বারেক আরও বলেন ২৬সেপ্টেম্বর ডিও সংশ্লিষ্টদের টাকা প্রদান করেছি এবং ২৮সেপ্টেম্বর চাউল উত্তোলন করেছি। আর ওসিএলএসডি বলছেন ২৯সেপ্টেম্বর চাউল ডেলিভারী দেয়া হয়েছে।
সম্প্রতি ভিজিএফ’র চাউল স্থানীয় সোহেলকে দিয়ে ক্রয় করে সরবরাহের প্রাক্কালে আর্ম ব্যাটালিয়ান হাতে নাতে ধরে ফেলে । সেই সময়ও অর্থদাতা আব্দুল বারেক তার নাম ধামাচাপা দিতে অনেক টাকা পয়সা খরচ করেন।
সেই প্রসঙ্গে আ: বারেক বলেন, আমি সোহেলের অর্থ দাতা নই। তাদের সাথে আমার ব্যবসায়িক সম্পর্ক, টাকা লেন দেন আছে।
শিবগঞ্জ কর্মকারপাড়া কালীমন্দির সভাপতি শ্রী পরিমল চন্দ্র পালসহ একাধিক মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা একটা রশিদ দিয়ে বারেক ট্রেডার্স থেকে টাকা নিয়ে এসেছি আমরা কোন মালটাল (চাউল) তুলি নাই।
সোহেল জানান, আমি প্রভাবশালী ব্যবসায়ীদের মাল কিনতে গিয়ে ধরা খেয়েছি আমার শিক্ষা হয়েছে।
উপজেলা গোডাউন সংশ্লিষ্ট মিলার লাইসেন্স, ডিলার লাইসেন্স, ফুড লাইসেন্স এবং গোডাউনের ভেতরের সকল অনিয়ম দূর করতে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ প্রয়োজন।

Related posts:

About fulbaria

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*