,

ThemesBazar.Com

দীর্ঘদিন পর গৌরীপুর উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন : বিরাজ করছে আতংক

মশিউর রহমান কাউসার, গৌরীপুর : প্রায় চৌদ্দ বছর পর ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা যুবলীগের কাউন্সিল বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) স্থানীয় বঙ্গবন্ধু চত্বরে বেলা ২ টায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার পাশাপাশি বিরাজ করছে নানা আতংক। সম্মেলনকে সফল করতে ও কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দের আগমনে বুধবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে গৌরীপুর পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পৌর শহরে বিশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ময়মনসিংহ-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন আহমেদ। যুবলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে গৌরীপুরে আওয়ামী রাজনীতির মাঠ চাঙ্গা হয়ে ওঠেছে। নতুন নেতৃত্বে কে অসবেন, এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে নানা আলোচনা। সম্ভাব্য প্রার্থীদের মাঝে যারা প্রচারনা ও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তারা হলেন- সভাপতি পদে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সানাউল হক, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান আজাদ লিটন, উপজেলা যুবলীগ নেতা পৌর কাউন্সিলর দেওয়ান মাসুদুর রহমান খান সুজন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু সাঈদ, পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি সাবেক জিএস মুজিবুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর মোফাজ্জল হোসেন খান, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন। তবে এ সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা আরো দীর্ঘ অথবা পাল্টে যেতে পারে বলে জানিয়েছে স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। তবে কাউন্সিলকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মাঝে উচ্ছাস বিরাজ করলেও পৌর শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বরে সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত কোন মঞ্চ বা সাজ-সজ্জা হয়নি। সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক তপন সাহা সাংবাদিকদের জানান, রাতের মধ্যেই মঞ্চ হয়ে যাবে। তিনি জানান এ সম্মেলনের কাউন্সিলার সংখ্যা ২০০শ জন। অপরদিকে পৃথক পৃথক মোটর সাইকেল মহড়া, শোডাউনের কারণে আতঙ্ক, শঙ্কা আর উৎকন্ঠাও কম নয়। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরাও পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে রয়েছেন তৎপর। ২০০৩ সালের ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিত যুবলীগের কাউন্সিলে সভাপতি পদে মো. সানাউল হক ও সাধারণ সম্পাদক পদে ইকবাল হাসান আজাদ লিটন নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর আর সম্মেলন হয়নি। এদিকে কাউন্সিলারদের প্রত্যক্ষ ভোটে নূতন নেতৃত্ব বেড়িয়ে আসবে এমনটাই জানালেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সদস্য মো. কামাল হোসেন। তবে ঘোষণাও আসতে পারে এমন শঙ্কা উড়িয়ে দেননি যুবলীগের অনেক নেতাকর্মী। যুবলীগের এ সম্মেলন উদ্বোধন করবেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের আহবায়ক এডভোকেট আজাহারুল ইসলাম। এতে অতিথি হিসেবে থাকবেন কেন্দ্রিয় যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক বাবু সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম বদি, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ডাঃ হেলাল উদ্দিন আহাম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক বাবু বিধু ভূষন দাস, গৌরীপুর পৌর আ’লীগের সভাপতি পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, কেন্দ্রিয় যুবলীগের সদস্য আবু কাউছার চৌধুরী রন্টি, ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক শাহরিয়ার মোঃ রাহাত খান, শওকত ওসমান লিটন, রফিকুল ইসলাম পিন্টু, এইচএম ফারুক, আখেরুল ইমাম সোহাগ প্রমুখ। সভাপতিত্ব করবেন গৌরীপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ সানাউল হক ও সঞ্চালনায় থাকবেন সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান আজাদ লিটন। প্রভাব বিস্তার ও বিশৃঙ্খলার শঙ্কা-আতঙ্ককে উড়িয়ে দিয়ে ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, একাধিক প্রার্থী হলে সমঝোতার উদ্যোগ নেয়া হবে। অন্যথায় গোপন ব্যালটে নূতন নেতৃত্ব বেড়িয়ে আসবে। কেউ বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে সাংগঠনিক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রশাসনকেও বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। বুধবার কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দের আগমনে স্বাগত মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য দেন গৌরীপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদ সদস্য এইচএম খায়রুল বাসার, পৌর কাউন্সিলার মাসুদ মিয়া রতন, গৌরীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, অচিন্তপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম অন্তর, রামগোপালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আমিন জনি, ডৌহাখলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল হক সরকার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান আজাদ লিটন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সোমনাথ সাহা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সোহেল রানা, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নাজমূল হক, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা প্রমুখ।

ThemesBazar.Com

     এ জাতীয় আরও সংবাদ